না জানলে প্রতারিত হবেনঃ সবচেয়ে নতুন এবং হাই কনফিগারের মোবাইল কেনার নিয়ম

সবার আগে যা দেখবেনঃ

সবার আগে দেখবেন ব্যটারি। এখন ৬০০০ মিলিএম্পিয়ার পর্যন্ত ব্যটারির মোবাইল আছে। মোবাইল যাই হোক, ব্যটারি যদি পাওয়ারফুল না হয়, তাহলে সবই বৃথা। তাই বলে আপনাকে ৬০০০ এম্পিয়ারের মোবাইল কিনতে হবে এমন না ব্যপারটা। বর্তমান বাজারের ভিত্তিতে ৩৫০০ থেকে ৪৫০০ এম্পিয়ারের ব্যটারি হলেই বেশ শান্তিতে কাটিয়ে দিতে পারবেন আপনার সময়গুলো। এর নিচে যদি ব্যটারির পাওয়ার হয় তাহলে আপনার অশান্তির শেষ থাকবেনা।

সো, প্রথম কাজ ৩৫০০ থেকে ৪৫০০ এম্পিয়ারের ব্যটারির মোবাইলগুলো লিস্ট করা। এর নিচে যেসব ব্যটারির মোবাইল আছে সবগুলোকে গুড বাই বলে দিন।

মনে রাখবেন, এই ২০১৮ সালে যদি আপনি ৩৫০০ এম্পিয়ারের নিচে মোবাইল কিনেন তাহলে বুঝবেন যে, আপনি ঠকেছেন এবং দোকানদার আপনাকে খারাপ একটি মোবাইল গছিয়ে দিয়েছে।

 

ব্যটারি দেখার পর্ব শেষ হলে যা দেখতে হবেঃ

ব্যটারি দেখা শেষ হয়ে থাকলে এবার দেখবেন প্রসেসর। মিডিয়াটেকের (MediaTek) প্রসেসর থেকে দূরে থাকুন। প্রসেসর কিনবেন অবশ্যই স্ন্যপড্রাগনের। শুধু তাই নয়, স্ন্যপড্রাগনের প্রসেসর অবশ্যই ৬০০ এর উপরের মডেলের কিনবেন। কারন ৬০০ এর নিচের যেসব ভার্সন বাজারে আছে সেগুলো পুরাতন হয়ে গেছে অনেক আগেই। বিঃদ্রঃ আরেকটা প্রসেসর বাজারে আছে যেটা শুধুমাত্র আইফোনে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। তাই আইফোন যদি কেনেন তাহলে প্রসেসর কোনটা আছে সেটা আপনার দেখার দরকার নেই। মনে রাখবেন, আইফোন হল আইফোন। যা আপনি প্রায় নিশ্চিন্তে কিনতে পারেন। আইফোন টেন এর প্রসেসরের নাম এ-১০ (A10)। মনে রাখবেন প্রসেসর হচ্ছে মোবাইলের সবচেয়ে গুরুত্বপুর্ন অংশ। প্রসেসর যদি ভাল না হয়ে তাহলে আপনার জান কাবাব হয়ে যাবে। কোন কিছুই চালিয়ে শান্তি পাবেন না। আটকে যাবে, হ্যং করবে, গরম হবে এবং সাথে আরো নতুন নতুন প্রবলেম আপনাকে ফেস করতে হবে যদি প্রসেসর ভাল না হয়। তাই প্রসেসর চুজিং এর ক্ষেত্রে কোন প্রকার কম্প্রোমাইজ না করাই বাঞ্চনীয়। আর যদি মনে করেন, কিছু কিছু সমস্যা নিয়েই আপনি আপনার মোবাইলটি ব্যবহার করবেন, তাহলে নিতে পারেন আপনার যা খুশি তাই। কারন কাজ চালিয়ে নেয়ার মত পার্ফর্মেন্স প্রায় সব মোবাইলের ই আছে। কিন্তু নির্ঝঞ্জাট সময় যদি কাটাতে চান তাহলে প্রসেসর আপনাকে চুজ করতেই হবে।

দোকানদার যদি আপনাকে ভুলভাল বুঝিয়ে মিডিয়াটেক প্রসেসর গছিয়ে দেয় তাহলে এ ব্যপারে নিশ্চিত থাকতে পারেন যে, আপনাকে গাধা পেয়ে ঠকানো হচ্ছে। আবার যদি স্ন্যপড্রাগনের ৬০০ এর নিচের প্রসেসর গছিয়ে দেয় তাহলে ধরেই নিতে পারেন যে, আপনাকে আবুল পেয়ে পুরাতন মডেল হাতিয়ে দিয়েছে। প্রসেসর নিন স্ন্যপড্রাগন ৬০০ এর উপরের।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.